Beta

জিপিএ ৫ : শীর্ষে ঢাকা, সর্বনিম্নে সিলেট

০৬ মে ২০১৮, ১৭:২১

অনলাইন ডেস্ক
ফলাফল প্রকাশের পর শিক্ষার্থীদের উল্লাস। ছবিটি রাজধানীর আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে তোলা। ছবি : ফোকাস বাংলা

চলতি বছর এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় জিপিএ ৫ পাওয়া শিক্ষার্থীর সংখ্যা বেড়েছে। এবার মোট জিপিএ ৫ পেয়েছে  এক  লাখ ১০ হাজার ৬২৯ শিক্ষার্থী। এবার জিপিএ ৫ পাওয়ায় এগিয়ে আছে ঢাকা বোর্ড। তালিকায় শেষে আছে সিলেট।  

এবার জিপিএ ৫ পেয়েছে ৫৫ হাজার ৭০১ জন ছাত্র এবং  ৫৪ হাজার  ৯২৮ জন ছাত্রী।  

আজ রোববার সকাল ১০টার দিকে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল হস্তান্তর করেছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। পরে দুপুর ১টায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে ফলের নানা দিক নিয়ে আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে আসেন শিক্ষামন্ত্রী। 

২০১৭ সালে জিপিএ ৫ পায় এক  লাখ চার হাজার ৭৬১ জন। 

শীর্ষে  থাকা ঢাকা বোর্ডে জিপিএ ৫ পেয়েছে ৪১ হাজার ৫৮৫ শিক্ষার্থী। এর মধ্যে রয়েছে ২১ হাজার ৮৭৪ জন ছাত্রী এবং ১৯ হাজার ৭১১ জন ছাত্র। 

এর পরই রয়েছে রাজশাহী বোর্ড। এই বোর্ডে জিপিএ ৫ পেয়েছে ১৯ হাজার ৪৯৮ শিক্ষার্থী। এর মধ্যে রয়েছে ১০ হাজার ১৮ জন ছাত্র এবং ৯ হাজার ৪৮০ জন ছাত্রী।   
 
দিনাজপুর বোর্ডে জিপিএ ৫ পেয়েছে ১০ হাজার ৭৫৫ শিক্ষার্থী। এর মধ্যে পাঁচ হাজার ৬৮০ ছাত্র এবং পাঁচ হাজার ৭৫ ছাত্রী।

যশোর বোর্ডে জিপিএ ৫ পেয়েছে ৯ হাজার ৩৯৫ শিক্ষার্থী। এর মধ্যে পাঁচ হাজার ১৮ জন ছাত্র ও চার হাজার ৩৭৭ জন ছাত্রী।

চট্টগ্রাম বোর্ডে জিপিএ ৫ পেয়েছে আট হাজার ৯৪ জন। এর মধ্যে চার হাজার ১৭২ জন  ছাত্রী এবং তিন হাজার ৯২২ ছাত্র। 

কুমিল্লা বোর্ডে জিপিএ ৫ পেয়েছে ছয় হাজার ৮৬৫ শিক্ষার্থী। এর মধ্যে তিন হাজার ৪৮৬ ছাত্র ও  তিন হাজার ৩৭৯ ছাত্রী।

বরিশাল বোর্ডে জিপিএ ৫ পেয়েছে তিন হাজার ৪৬২ শিক্ষার্থী। এর মধ্যে এক হাজার ৮০১ ছাত্রী এবং এক হাজার ৬৬১ ছাত্র। 

সিলেট বোর্ডে জিপিএ ৫ পেয়েছে তিন হাজার ১৯১ শিক্ষার্থী। এর মধ্যে এক হাজার ৭১৮ ছাত্র এবং এক হাজার ৪৭৩ ছাত্রী।

কারিগরি শিক্ষা বোর্ডে জিপিএ ৫ পেয়েছে চার হাজার ৪১৩ শিক্ষার্থী। এর মধ্যে দুই হাজার ৪৯৯ ছাত্র এবং এক হাজার ৯১৪ ছাত্রী। 

মাদ্রাসা বোর্ডে জিপিএ ৫  পেয়েছে তিন হাজার ৩৭১ শিক্ষার্থী। এর মধ্যে এক হাজার ৯৮৮ ছাত্র এবং এক হাজার ৩৮৩ ছাত্রী।

গত ১ থেকে ২৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সারা দেশে ও দেশের বাইরে কয়েকটি কেন্দ্রে একযোগে এসএসসি ও সমমানের লিখিত বিষয়ের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। আর ব্যবহারিক পরীক্ষা ২৬ ফেব্রুয়ারি থেকে ৪ মার্চ পর্যন্ত চলে।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement