Beta

রাজস্থানের অভিশপ্ত শহর

১০ মার্চ ২০১৫, ১৮:১৯

রাজস্থানের রহস্যময় ভূতুড়ে শহর কুলধারা। ছবি: বোর্ড পান্ডা

ঐতিহ্য আর সংস্কৃতির এক দর্শনীয় স্থান ভারতের রাজস্থান। প্রতিবছর পুরো পৃথিবী থেকে অজস্র পর্যটক বেড়াতে যান রাজস্থানে। আপনারও যদি কখনো যাওয়ার সুযোগ মেলে, সুযোগ হাত ছাড়া করবেন না। শুধু রাজস্থানের বিখ্যাত জয়সলমীর শহর থেকে খানেক দূরের এক পরিত্যক্ত ছোট্ট শহরে ভুলেও যাবেন না! অভিশপ্ত ওই শহরে গিয়ে প্রাণ নিয়ে ফিরতে পারেনি কেউ! বোরড পান্ডা ওয়েবসাইটে জানা গেল এই রহস্যময় শহরের কথা। এর নাম কুলধারা।

জয়সলমীর থেকে বেশি একটা দূরে নয় কুলধারা শহরটি। মোটে ১৫-১৭ কিলোমিটার এগোলেই হদিস মিলবে এই শহরের। এখন সেখানে কেউ থাকে না। থাকবার কথাও নয়। বিশ্বাস করা হয়, অভিশপ্ত এ শহরে গেলে কেউই প্রাণ নিয়ে ফিরতে পারবে না।

প্রায় ৩০০ বছর আগে এই শহরের গোড়াপত্তন করেছিল পালিওয়াল ব্রাহ্মণরা। ব্যবসায়িক ক্ষেত্রে বিচক্ষণতা ও দক্ষতার কারণে তারা বেশ সুনাম অর্জন করেছিল, পার্শ্ববর্তী আরো ৮৪টি গ্রামেও দারুণভাবে ছড়িয়ে পড়েছিল কুলধারার এই খ্যাতি। সুখেই কাটছিল কুলধারার মানুষদের জীবন। কিন্তু এরই মধ্যে একদিন ঘনিয়ে আসে ঘোর দুর্যোগ।

স্থানীয় পরিষদের এক সদস্যের কারণে গ্রামবাসী একদিন বিপদে পড়ে। গ্রামের প্রধানের মেয়েটির দিকে তার নজর পড়ে। সে গ্রামবাসীকে বলে মেয়েটিকে তার হাতে তুলে দিতে, না হলে তাদের অনেক ভোগান্তি পোহাতে হবে বলে হুমকি দেয়। গ্রামবাসী এমন পরিস্থিতিতে একদিন রাতে নিজেরা দেখা করে। এ অবস্থায় তারা নিজেদের আত্মসম্মানকে সর্বোচ্চ মর্যাদা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় এবং ওই রাতেই গ্রাম ছেড়ে চলে যায় চিরকালের জন্য। তবে যাওয়ার আগে কুলধারা গ্রামের মাটিকে গ্রামবাসীর প্রত্যেকে অভিশাপ দিয়ে যায়।

সেদিনের পর থেকে, কুলধারাতে কেউই নতুন করে আবাসস্থল গড়ে তুলতে পারেনি। কেউ দখলও করতে পারেনি কোনো জায়গা। যারাই চেষ্টা করেছে, তাদেরই ভাগ্যে নেমে এসেছে নির্মম মৃত্যু। সে কারণে মনে করা হয় যে গ্রামবাসীর অভিশাপ এখনো কার্যকর এই পরিত্যক্ত রহস্যময় নগরীতে। ভারতীয় সরকার এটিকে ঐতিহ্যের অংশ হিসেবে ঘোষণা দিয়েছে।

নেহায়েত ভূতুড়ে গল্প হোক আর যাই হোক, রাজস্থান গেলে কুলধারার দিকে না যাওয়াটাই ভালো!

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement