Beta

অল্পের জন্য বেঁচে গেলেন হেইডেন

০৯ অক্টোবর ২০১৮, ০৮:৪৯ | আপডেট: ০৯ অক্টোবর ২০১৮, ০৯:৩৬

বাসস
আহত হওয়ার পর অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের সাবেক ওপেনার ম্যাথু হেইডেন। ছবি : সংগৃহীত

ছেলেকে নিয়ে নিজ রাজ্য কুইন্সল্যান্ডের সমুদ্রসৈকতে সার্ফিং করতে গিয়ে মহাবিপদ থেকে বেঁচে গেলেন অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের সাবেক ওপেনার ম্যাথু হেইডেন। সমুদ্রে দীর্ঘক্ষণ সার্ফিং করার পর বড় ধরনের ঢেউয়ের সঙ্গে তাল মেলাতে না পেরে বালুতে পড়ে যান। পড়ে গিয়েই গুরুতর চোট পেয়েছেন এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। তবে অল্পের জন্য বেঁচে গিয়েছেন তিনি।

ছুটি পেয়ে ছেলে জশ হেইডেনকে নিয়ে কুইন্সল্যান্ডের নর্থ স্ট্র্যাডব্রোক দ্বীপে সার্ফিং করছিলেন হেইডেন। দীর্ঘক্ষণ ঢেউয়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে দক্ষতার সঙ্গে সার্ফিং করছিলেন তিনি। কিন্তু একপর্যায়ে তুমুল ঢেউয়ের কাছে হার মানেন হেইডেন। বালুতে পড়ে গিয়ে ঘাড়ে-মাথায় চোট পেয়েছেন তিনি। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ইনস্টাগ্রামের মাধ্যমে নিজেই এ খবর দিয়েছেন হেইডেন।

শরীরে আঘাত পাওয়া বিভিন্ন স্থানের কিছু ছবিও ইনস্টাগ্রামে প্রকাশ করেছেন হেইডেন। পাশাপাশি পুরো ঘটনার বর্ণনাও দিয়েছেন তিনি, ‘কয়েক ঘণ্টা সার্ফিং করার পর ঘটনাটি ঘটে। আমরা আধা ডজন ঢেউ সামলে  নিয়েছিলাম। কিন্তু ডান দিক থেকে একটা বড় ঢেউ এসেছিল। আমি পাশ কাটার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়েছি। ফলে বালুর নিচে আছড়ে পড়ি। তারপর কী হয়েছে, মনে নেই। নিজের শরীরের ওজন আর ঢেউয়ের চাপে ঘাড় মচকে গিয়েছিল। ঘাড়ের কাছে ভাঙার শব্দও শুনতে পেয়েছিলাম। তবে আমি শেষ হয়ে যাইনি, এটা বুঝতে পারছিলাম। এমআরআই ও সিটি স্ক্যান করে দেখা গেছে, মাথায় ও ঘাড়ে আঘাত লেগেছে। চিড় ধরেছে মেরুদণ্ডে। কপালও কেটে গেছে। পায়ের লিগামেন্টও ছিঁড়ে গেছে।’

এত বড় দুর্ঘটনার পরও নিজের প্রতি আত্মবিশ্বাস হারাননি হেইডেন। দ্রুত সুস্থ হয়ে ফেরার ইঙ্গিত দিলেন তিনি, ‘সমুদ্র দেয় এবং সমুদ্র ফিরিয়ে নেয়, তবে আমি আবারও ফিরব।’

২০০৯ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নেন হেইডেন। দেশের হয়ে ১০৩টি টেস্ট, ১৬১টি ওয়ানডে ও নয়টি টি-টোয়েন্টি খেলেছেন তিনি। টেস্টে ৮৬২৫, ওয়ানডেতে ৬১৩৩ ও টি-টোয়েন্টিতে ৩০৮ রান করেন হেইডেন।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement