Beta

পাকুন্দিয়ায় বিএনপি নেতা ইদ্রিস আলীর ইন্তেকাল

১১ জানুয়ারি ২০১৯, ২০:৪১

কিশোরগঞ্জ জেলা বিএনপির উপদেষ্টা ও পাকুন্দিয়া উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি আলহাজ ইদ্রিস আলী ভূঁইয়া। ছবি : সংগৃহীত

কিশোরগঞ্জ জেলা বিএনপির উপদেষ্টা, পাকুন্দিয়া উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ও সদর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সাবেক চেয়ারম্যান বর্ষিয়ান জননেতা আলহাজ ইদ্রিস আলী ভূঁইয়া আর নেই। আজ শুক্রবার বেলা ১১টায় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে পাকুন্দিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ইন্তেকাল করেন তিনি (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৮ বছর।

ইদ্রিস আলী ভূঁইয়ার মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

ইদ্রিস আলী ভূঁইয়ার গ্রামের বাড়ি পাকুন্দিয়া পৌর সদরের চরলক্ষীয়া গ্রামে। তিনি স্ত্রী, তিন মেয়ে, নাতি-নাতনি, আত্মীয়-স্বজনসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। আগামীকাল শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় পাকুন্দিয়া সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে মরহুমের জানাজা শেষে চরলক্ষীয়া গ্রামের পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে।

ইদ্রিস আলী ভূঁইয়া ১৯৮৫ সাল থেকে ২০০৯ পর্যন্ত টানা ২৪ বছর পাকুন্দিয়া উপজেলা বিএনপির সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। এ ছাড়া তিনি ধানের শীষ প্রতীকে ১৯৯৬, ২০০১ ও ২০০৮ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

বর্ষিয়ান এ নেতার মৃত্যুতে পাকুন্দিয়া উপজেলা জুড়ে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। জেলা বিএনপির সভাপতি মো. শরীফুল আলম ও সাধারণ সম্পাদক মাজহারুল ইসলাম, পাকুন্দিয়া উপজেলা বিএনপির সভাপতি অ্যাডভোকেট জালাল উদ্দিন ও সাধারণ সম্পাদক কামাল উদ্দিনসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ তাঁর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।

বিএনপি মহাসচিবের শোকবার্তা

বিএনপির সহদপ্তর সম্পাদক বেলাল আহমেদের পাঠানো বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, আজ এক শোকবার্তায় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, ‘শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান বীর উত্তমের নীতি ও আদর্শ এবং বাংলাদেশি জাতীয়তাবাদী দর্শনে গভীরভাবে আস্থাশীল মরহুম ইদ্রিস আলী ভূঁইয়া পাকুন্দিয়া উপজেলা বিএনপিকে সুসংগঠিত, শক্তিশালী ও গতিশীল করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। তাঁর গতিশীল নেতৃত্বে পাকুন্দিয়া উপজেলা বিএনপি একটা মজবুত ভিত্তির ওপর প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। এ ছাড়া বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে হারানো গণতন্ত্র ফিরে পাওয়ার আন্দোলন সংগ্রামে তাঁর সাহসী ও বলিষ্ঠ ভূমিকা স্থানীয় বিএনপি নেতাকর্মীদেরকে সবসময় অনুপ্রাণিত করবে। আমি তাঁর মৃত্যুতে গভীরভাবে শোকাহত ও ব্যথিত হয়েছি। দোয়া করি-মহান রাব্বুল আলামিন যেন মরহুম ইদ্রিস আলী ভূঁইয়াকে বেহেশত নসিব এবং শোকাহত পরিবারের সদস্যদের ধৈর্য্যধারণের ক্ষমতা দান করেন।’

বিএনপি মহাসচিব শোকবার্তায় মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যবর্গ, আত্মীয়স্বজন, গুণগ্রাহী ও শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

Advertisement