Beta

দুদকে হাজির হননি মাহি বি চৌধুরী ও তাঁর স্ত্রী

০৭ আগস্ট ২০১৯, ১৮:০২

নিজস্ব প্রতিবেদক

দুর্নীতি দমন কমিশনের ডাকে হাজির হননি বিকল্প ধারা বাংলাদেশের যুগ্ম মহাসচিব সংসদ সদস্য মাহি বি চৌধুরী ও তাঁর স্ত্রী আশফাহ হক।

তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহের জন্য আরো সময় প্রয়োজন উল্লেখ করে দুদকের কাছে চিঠি দিয়েছেন মাহি বি চৌধুরী।

পরে আদালত সময় আবেদন গ্রহণ করে আগামী ২৫ আগস্ট আবারও উপস্থিত হওয়ার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন। বিষয়টি এনটিভি অনলাইনকে নিশ্চিত করেন দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য। 

এর আগে গত ২৮ জুলাই  যুক্তরাষ্ট্রে অর্থ পাচারের অভিযোগে বিকল্পধারা বাংলাদেশের যুগ্ম মহাসচিব মাহি বি চৌধুরী এবং তাঁর স্ত্রী আশফাহ হক লোপাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। দুদকের প্রধান কার্যালয় থেকে মাহি বি চৌধুরীর গুলশানের বারিধারার (রোড নম্বর : ১২, বাড়ি : ১৯) ঠিকানায় ওই তলবি নোটিশ পাঠানো হয়।

অনুসন্ধান কর্মকর্তা ও দুদকের উপপরিচালক জালাল উদ্দিন আহাম্মদ সই করা চিঠিতে তাদের ৭ আগস্ট সকাল সাড়ে ১০টায় দুদকের প্রধান কার্যালয়ে হাজির হতে বলা হয়েছে। কিন্তু দুদকের ডাকে তারা সাড়া দেননি।

বিষয়টি নিশ্চিত করে দুদকের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানান, মাহি বি চৌধুরী এবং তাঁর স্ত্রীর বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রে অর্থ পাচারের মাধ্যমে জ্ঞাত আয় বহিভূর্ত সম্পদ অর্জনের অভিযোগ রয়েছে। ওই অর্থের উৎস জানতে তাঁদের তলব করা হয়েছে। ৭ আগস্টে তলব করা হলেও গত জুন মাস থেকেই তাঁদের অর্থপাচারের অভিযোগ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। মাহী ও তাঁর স্ত্রীর সম্পদ, সম্পদের উৎস, ব্যাংক হিসাব জানতে বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠান ও ব্যাংকের সহযোগিতা নেওয়া হচ্ছে বলেও জানান দুদকের এই ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা।

মাহি বি চৌধুরী সাবেক রাষ্ট্রপতি ও বিকল্পধারা বাংলাদেশের সভাপতি ড. এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরীর ছেলে। গত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে আওয়ামী লীগের সঙ্গে জোট করে বিকল্পধারা বাংলাদেশ। ওই নির্বাচনে নৌকা প্রতীক নিয়ে মুন্সীগঞ্জ-১ আসন থেকে নির্বাচন করে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন মাহি বি চৌধুরী।

Advertisement