Beta

দুর্গাপূজায় বেনাপোলে ৪ দিন আমদানি-রপ্তানি বন্ধ

১৬ অক্টোবর ২০১৮, ১২:৩৮

মহসিন মিলন, বেনাপোল
যশোরের বেনাপোল বন্দর। ফাইল ছবি

শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে টানা চারদিনের ছুটির কবলে পড়ছে বেনাপোল স্থলবন্দর। দুই দেশের মধ্যে আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য বন্ধ থাকলেও মালামাল খালাসসহ পাসপোর্টধারী যাত্রীদের যাতায়াত স্বাভাবিক থাকবে।

তবে চার দিন বন্ধের ফলে ভারতীয় অংশে ভয়াবহ পণ্যজট সৃষ্টি হতে পারে বলে জানিয়েছেন বেনাপোল বন্দর পরিচালক আমিনুল ইসলাম।

ভারতের বনগাঁ কালিতলা পার্কিংয়ে প্রায় আড়াই হাজার পণ্যবোঝাই ট্রাক বাংলাদেশে প্রবেশের অপেক্ষায় যত্রতত্র দাঁড়িয়ে আছে বলে জানা গেছে। এই চার দিনে সৃষ্ট যানজট ভয়াবহ আকার ধারণ করে পরবর্তী কয়েকদিন ভোগান্তি নেমে আসতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

আজ মঙ্গলবার থেকে ১৯ অক্টোবর শুক্রবার পর্যন্ত বেনাপোল বন্দর দিয়ে সব ধরনের আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য বন্ধ থাকবে।

ভারতের পেট্রাপোল বন্দরের সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টস স্টাফ অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক কার্তিক চক্রবর্তী এনটিভি অনলাইনকে বলেন, হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় অনুষ্ঠান শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে ভারতীয় ট্রাকচালকরা চারদিন পণ্য পরিবহন করবে না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ফলে দুই দেশের মধ্যে পণ্য আমদানি-রপ্তানি বন্ধ থাকবে।

কার্তিক চক্রবর্তী আরো জানান, পূজা শেষে ২০ অক্টোবর, শনিবার সকাল থেকে আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম শুরু হবে।

বেনাপোল বন্দর পরিচালক আমিনুল ইসলাম জানান, ভারতের পেট্রাপোল কাস্টমসের ডেপুটি কমিশনার রামেশ্বর মিনা পূজায় চারদিন ছুটির বিষয়টি তাঁকে জানিয়েছেন। তবে এ সময় ভারতের সঙ্গে আমদানি-রপ্তানি বন্ধ থাকলেও বেনাপোল বন্দরের অন্যান্য কার্যক্রম চালু থাকবে।

আমদানি-রপ্তানি বন্ধের চারদিনে বন্দর এলাকায় যাতে কোনো ধরনের নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড না ঘটে সেজন্য নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার থাকবে বলেও জানান তিনি।

বন্দর দিয়ে আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য বন্ধ থাকলেও পাসপোর্টধারী যাত্রীদের চলাচল স্বাভাবিক থাকবে বলে বেনাপোল ইমিগ্রেশন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোমন উদ্দিন জানান।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement