Beta

ঢাবিতে আধুনিক লাইব্রেরি কমপ্লেক্সের দাবিতে ছাত্রলীগের মানববন্ধন

১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৬:৩৪

বিশ্ববিদ্যালয় সংবাদদাতা
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে আধুনিক লাইব্রেরি কমপ্লেক্সের দাবিতে আজ সোমবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির সামনে মানববন্ধন করে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। ছবি : এনটিভি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে আধুনিক, যুগোপযোগী, মানসম্মত, ডিজিটাল এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪৩ হাজার শিক্ষার্থীর চাহিদা পূরণে সক্ষম কেন্দ্রীয় লাইব্রেরি কমপ্লেক্সের দাবিতে মানববন্ধন করেছে ছাত্রলীগ।

আজ সোমবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির সামনে এ মানববন্ধনে অংশ নেয় সংগঠনটির কেন্দ্রীয় ও বিশ্ববিদ্যালয় শাখার কয়েকশ নেতাকর্মী।

মানববন্ধনে অনেকের হাতে নানা স্লোগান সংবলিত ব্যানার দেখা গেছে। এতে লেখা ছিল, ডিজিটাল বাংলাদেশ আমাদের ঠিকানা; বিশ্ববিদ্যালয়ের মান উন্নয়নের জন্য স্বয়ংসম্পূর্ণ লাইব্রেরি চাই; ডিপার্টমেন্ট বাড়ে, শিক্ষার্থী বাড়ে, বাড়ে না শুধু লাইব্রেরির জায়গা; লাইব্রেরি হোক গবেষণার কেন্দ্র ইত্যাদি।

এ সময় সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি মো. রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী, ঢাবি শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি সঞ্জিত চন্দ্র দাস, সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসাইন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মানববন্ধনে মো. রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন বলেন, আমরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে প্রাচ্যের অক্সফোর্ড বলে থাকি। কিন্তু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়ে আমাদের যে মেধার বিকাশ ঘটবে, সেই মেধা বিকাশের জন্য পড়াশোনার যে পরিবেশ দরকার তা আমরা প্রথম বর্ষ থেকে পাচ্ছি না। আমাদের পড়ার জন্য সকাল বেলা ঘুম থেকে উঠে লাইব্রেরিতে পড়ার জন্য লাইন ধরতে হয়। তাই প্রশাসনের কাছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার মান বাড়ানোর জন্য কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির এবং হলের রিডিং রুমের সিট বৃদ্ধি করার আহ্বান করছি।

গোলাম রাব্বানী বলেন, লাইব্রেরিতে শিক্ষার্থীরা ঘণ্টার পর ঘণ্টা দাঁড়িয়ে থাকে বসার জায়গা নিশ্চিত করার জন্য। আমরা এতে বিব্রত হই। তাই বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে বারবার বলছি কবে নাগাদ এই উন্নত, আধুনিক, ডিজিটাল লাইব্রেরি করা হবে। ছাত্রলীগ সব সময় সাধারণ শিক্ষার্থী ও গণমানুষের পক্ষে কথা বলে।

প্রসঙ্গত, বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক কেন্দ্রীয় লাইব্রেরি, ডাকসু ভবন সম্প্রসারণ ও টিএসসি সংস্কারের উদ্যোগ নিয়েছিলেন।

এ বিষয়ে হায়ার এডুকেশন কোয়ালিটি এনহ্যান্সমেন্ট প্রজেক্টের (হেকেপ) সভাপতি জীবন কুমার মিশ্র এনটিভি অনলাইনকে বলেন, এই তিনটি বিষয় সংস্কারের জন্য আমরা আগে থেকেই সরকারকে একটি প্রস্তাবনা দিয়েছি। তবে তা এখনো পাস হয়নি।

Advertisement