Beta

রম্য

মীরাক্কেলখ্যাত এমদাদুল হক হৃদয়ের সাক্ষাৎকার

১০ সেপ্টেম্বর ২০১৬, ১৩:২৭

আবিদুল ইসলাম রিমন

প্রশ্ন : হৃদয়কে কি কোনো মেয়ে কখনো হৃদয়হীন বলছে?

উত্তর : বলেনি। তবে কেউ যদি জানত- কোনোদিন আমার কোনো সাক্ষাৎকারে কেউ এ ধরনের প্রশ্ন করবে,তাহলে ফুটেজ খাওয়ার জন্য হলেও বলত।

প্রশ্ন : আপনার ভালো জোকস শুনে যখন কেউ হাসে না, তখন আপনার অনুভূতি কেমন হয়?

উত্তর : অনুভূতি ভালোই হয়। কেননা নিজের মনকে এই বলে সান্ত্বনা দেই- আমার কথা কেউ হেসে উড়িয়ে দেয়নি।

প্রশ্ন : পারফরমেন্স শেষ করার পর আপনি থ্যাংক ইউ না বলে ওয়েলকাম বললে কেমন হতো?

উত্তর : ঠিক তেমন হতো, যেমনটা এই মুহূর্তে আপনাকে সাক্ষাৎকার না দিয়ে অন্য কোনো পত্রিকায় দিলে হতো।

প্রশ্ন : কেউ গান গেয়ে, কেউ কবিতা আবৃত্তি করে মেয়ে পটায়। আপনি কি কখনো জোকস বলে মেয়ে পটিয়েছেন?

উত্তর : মেয়ে যদি পটাতেই পারতাম, তাহলে কি এখন আপনার সাথে আড্ডা দেওয়া লাগত?

প্রশ্ন : ছোট বেলার মতো কি এখনো ঈদের জামা লুকিয়ে রাখেন? যাতে কেউ ঈদের আগে দেখতে না পারে।

উত্তর : হ্যাঁ লুকিয়ে রাখি; তবে আগে নিজের জামা লুকিয়ে রাখতাম, এখন অন্যেরটা।

প্রশ্ন : ঢাকা শহরে জ্যামে বসে কী ভেবে টাইম পাস করেন?

উত্তর : জ্যাম রপ্তানি করার যদি কোনো সিস্টেম থাকত, তাহলে আমরা প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা আয় করতে পারতাম।

প্রশ্ন : কমেডিয়ান না হয়ে ডাক্তার হলে কী করতেন?

উত্তর : অপারেশন শেষে হাত-পা নাড়িয়ে থ্যাঙ্ক ইউ বলে জীবিত রোগীকেও মুমূর্ষু করে দিতাম!

প্রশ্ন : প্রেমে ছ্যাকা খেলে মানুষ কবি হয়। আর ক্রাশ খেলে?

উত্তর : কমেডিয়ান।

প্রশ্ন : পরী মণি, নুসরাত ফারিয়া কিংবা মাহিয়া মাহি- সুযোগ পেলে কার সাথে আইটেম গানের দৃশ্যে নাচতে চান?

উত্তর : সুযোগ যদি পেয়ে যাই, তাহলে শুধু নাচতে চাইব কেন? অন্যভাবে নিবেন না, গাইতেও চাইব।

প্রশ্ন : ছোট বেলায় কোন অপরাধের জন্য প্রায়ই শিক্ষকের বকাঝকা খেয়েছেন?

উত্তর : প্রশ্নের উত্তর অন্যভাবে দিচ্ছি। এই যেমন ধরুন-আপনি আমাকে জিজ্ঞেস করলেন, আপনার আব্বু আম্মু কী করেন? আমি উত্তর দিলাম-আমি জানি না; কারণ আমি রাতে খুব তাড়াতাড়ি ঘুমিয়ে যাই।

প্রশ্ন : স্ট্যান্ড আপ কমেডিয়ান না বলে সিট ডাউন কমেডিয়ান বলা হয় না কেন?

উত্তর : কারণ, স্ট্যান্ড আপ কমেডিয়ানদের জীবনে সিট ডাউন মোমেন্টের পরিধি খুব কম; তারা গোটা ছাত্রজীবনের বেশির ভাগ সময় বেঞ্চের উপরে কিংবা ক্লাসের বাইরে স্ট্যান্ড আপ করে কাটায়।

প্রশ্ন : প্রথম প্রেম ভোলা যায় না কেন?

উত্তর : কারণ, প্রথম প্রেমে কোনো ম্যাথমেটিকেল কোয়েকশন কিংবা রাসায়নিক বিক্রিয়ার সূত্র মনে রাখার ব্যাপার থাকে না।

প্রশ্ন : প্রেম না করার সবচে বড় পজেটিভ দিক কী?

উত্তর : স্বাধীনতা কী জিনিস তা হাড়ে হাড়ে অনুভব করা যায়।

প্রশ্ন : জোকস শুনে মানুষ হাসে কেন?

উত্তর : কারণ, বাপ-মায়ের চড় থাপ্পরে নিমিষেই কাদিয়ে ফেলার যে পাওয়ার আছে, সেটা জোকসের মধ্যে নেই।

প্রশ্ন : ঈদ নিয়ে একটা মজার ঘটনা বলুন?

উত্তর : ঈদ নিয়ে একটা অভজারবেশন- আপনি যদি কোনো মেয়েকে জিজ্ঞেস করেন- ঈদে কী কিনছ, তাহলে সে উত্তর দিবে -১০টা সালোয়ার কামিজ, পাঁচটা শাড়ি, ২০ সেট চুড়ি, ১৭টা শেদ এর লিপিস্টিক, ৩২টা কানের দুল। আর যদি কোনো ছেলেকে জিজ্ঞেস করেন, ঈদে কী কিনছ, তাহলে উত্তর দিবে- একটা সেন্ডু গেঞ্জি, তাও অনলাইন থেকে।  

প্রশ্ন : আপনার কোন বাজে অভ্যাস আপনার কাছে বাজে অভ্যাস মনে হয় না?

উত্তর : আড্ডা দেওয়া।

প্রশ্ন : মীরাক্কেলে যাবার পর থেকে আপনার উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন কী? যেটা আপনার চোখে নয়, মেয়েদের চোখে ধরা পড়ছে।

উত্তর : আমি যে এত স্মার্ট এবং কিউট সেটা মীরাক্কেলে না গেলে বুঝতাম না। অবশ্য এই পরিবর্তন আমার চোখে নয়, মেয়েদের চোখে ধরা পড়ছে।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement