Beta

ফেসবুক কমার্স নিয়ে বিশেষ সম্মেলন

০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৫, ১৭:৫৫

সামি আল মেহেদী
ন্যাশনাল এফ-কমার্স সামিট ২০১৫। ছবি : বিজ্ঞপ্তি

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম হিসেবে ফেসবুকের গুরুত্ব এখন বহুমুখী। কেবল কুশলবিনিময় নয়, বাণিজ্যিক কর্মকাণ্ডেও ফেসবুক এখন কার্যকরী প্লাটফর্ম হয়ে উঠেছে। কেনাবেচার স্থান বা ব্র্যান্ডিংয়ের ক্ষেত্র হিসেবে ফেসবুকের এই ব্যবহারের নামই হচ্ছে ‘ফেসবুক কমার্স’ বা ‘এফ-কমার্স’। সম্ভাবনাময় এই এফ-কমার্স নিয়ে সচেতনতা বাড়াতে গতকাল শনিবার প্রথমবারের মতো শুরু হয় ‘ন্যাশনাল এফ-কমার্স সামিট ২০১৫’। 

রাজধানীর ইএমকে সেন্টারে দুদিনের আয়োজনটি শেষ হয় আজ রোববার। এই আয়োজনের মূল উদ্যোক্তা ছিল গিকি সোশ্যাল। গিকি সোশ্যাল দেশের একমাত্র বিশেষায়িত সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং এজেন্সি। এ ছাড়া কৌশলগত উপদেষ্টা হিসেবে ‘বেসিস’ ছিল পুরো আয়োজনটির সাথে।  

অনুষ্ঠানের মূল উদ্দেশ্য ছিল বাংলাদেশের মানুষকে উদ্যোক্তা হওয়ার এই নতুন উপায়ের সাথে পরিচয় করানো। দুদিনে এতে ছিল মোট ১০টি সেশন। অনুষ্ঠানে আলোচনা করা হয় কীভাবে ওয়েবসাইট ছাড়াই ফেসবুকের মাধ্যমে ব্যবসা চালানো যায়, কীভাবে ব্যবসায়ের বিভিন্ন কৌশল ঠিক করতে হবে, কীভাবে সোশ্যাল মিডিয়াগুলোতে ব্যবসায়ের পরিচিতি বাড়াতে হবে, কীভাবে আনতে হবে ক্রেতা ইত্যাদি খুঁটিনাটি বিষয়। সেশনগুলো পরিচালনা করছেন দেশি-বিদেশি সফল ফেসবুক ব্যবসায়ী, বিজনেস কনসালটেন্ট এবং সোশ্যাল মিডিয়া এক্সপার্টরা। এ ছাড়া ছিল কয়েকটি এফ-কমার্স প্রদর্শনী বুথ, যেখানে ফেসবুক ব্যবসায়ীরা তাঁদের পণ্য প্রদর্শনের সুযোগ পান। বাংলাদেশে নতুন ধাঁচের এই ব্যবসা জনপ্রিয় করে তুলতে সামিটটি একটি মাইলফলক হিসেবে কাজ করবে।

এই উদ্যোগের গোল্ড স্পন্সর ‘আজকের ডিল ডট কম’, সিলভার স্পন্সর ‘ইএমকে সেন্টার’ এবং ব্রোঞ্জ স্পন্সর হিসেবে সহায়তা করছেন টেক স্টার্টআপ ‘নিউজক্রেড’।  

এ ছাড়া কমিউনিটি পার্টনার হিসেবে ছিল বাংলাদেশ ইয়াং এট্রাপ্রেনিউয়ার্স ল্যাব (বিওয়াইইএল), দ্য বিজ ক্যাফে শো, হাবঢাকা, স্টুডিও ওয়াশ, কোডিও ও গ্রিনশপ। 

আয়োজনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ছিলেন ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (ডিসিসিআই)-এর প্রেসিডেন্ট হুসেইন খালেদ, বেসিসের প্রেসিডেন্ট শামিম আহসান, ড্যাফোডিল গ্রুপের চেয়ারম্যান সবুর খান। আরো ছিলেন ইএমকে সেন্টারের পরিচালক এম কে আরেফ ও আজকের ডিল ডটকমের প্রতিষ্ঠাতা ফাহিম মাশরুর। 

 

Advertisement