Beta

ঈদের ছুটিতে

লিচুর স্বাদ নিতে সোনারগাঁওয়ে

০৫ জুন ২০১৮, ১৭:৫২ | আপডেট: ০৬ জুন ২০১৮, ১৩:২৬

সুমন্ত গুপ্ত

গ্রীষ্মের সবচেয়ে লোভনীয় ও স্বল্পমেয়াদি ফল লিচু। দেশের সব ফলের বাজার এরই মধ্যে লিচুর রঙে রাঙাতে শুরু করেছে।  বাগানগুলোর গাছে গাছেও এখন থোকায় থোকায় পাকা লিচু আছে। বাংলাদেশের যে কটি জায়গায় লিচুর ভালো ফলন হয় তার মধ্যে সোনারগাঁও অন্যতম। এ জায়গাটির লিচু বলতে গেলে সবার আগেই বাজারে আসে। সোনারগাঁওয়ের বাগানগুলো ইতিমধ্যেই পাকা লিচুর ভারে লাল সবুজে রূপ নিয়েছে। ঢাকার খুব কাছে হওয়ায় সহজেই ঘুরে আসতে পারেন এসব লিচু বাগান থেকে। আর বোধকরি সবাই রসালো মিষ্টি লিচু খেতে ভালোবাসেন। শহরের ৩ টাকা পিস লিচু খেয়ে কি আশ মেটে। তা ছাড়া প্রিয় ফলটি কীভাবে চাষ হয়, কেমন হয় এর গাছ। তাই  আর দেরি না করে চলে যান সরাসরি লিচু বাগানে। আর খরচের কথা ভাবছেন মাত্র ৭০ থেকে ৮০ টাকা।

যা দেখবেন

মুগড়াপাড়া  বাস স্টেশন থেকে সোনারগাঁওয়ের পথে কিছুটা পথ এগোলেই সড়কের দুইপাশের চিত্র কিছুটা থমকে দেবে আপনাকে। সবুজ পাতার ফাঁকে ফাঁকে রক্তিম লাল থোকা থোকা লিচু শোভা পাচ্ছে ডালে ডালে। সোনারগাঁওয়ের প্রায় সব লিচু বাগানেরই চিত্র অনেকটাই এ রকম। এখানকার গাছগুলো দেখলেই আঁচ করা যায় বাগানগুলো বেশ পুরোনো। তবে গাছগুলোর উচ্চতা এতই কম যে হাত দিয়েও লিচু পেড়ে খাওয়া যায়। এ জায়গা থেকে শুরু করে পানাম নগরের আশপাশে বেশ কিছু লিচু বাগান আছে। বাগান মালিকরা পর্যটকদের সানন্দে বাগান ঘুরে দেখতে দেন। তাই অনুমতি নিয়ে পছন্দসই কোনো একটি বাগানে ঢুকে পড়তে পারেন। ইচ্ছে করলে বাগান থেকেই লিচু কিনে খেতে পারবেন। একেবারে নিজ হাতে গাছ থেকে পেড়ে। সোনারগাঁও উপজেলার যেসব জায়গায় লিচু বাগান আছে তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো—পানাম, গোয়ালদী, বৈদ্যের বাজার, ভট্টপুর, গাবতলী, হারিয়া, অর্জুন্দী, গোবিন্দপুর, কৃষ্ণপুরা, বাগমুছা, হাতকোপা, দত্তপাড়া, খাসনগর, দীঘিরপাড়, চিলারবাগ, দৈলরবাগ, দরপত, টিপরদী, হরিষপুর, তাজপুর, সাদীপুর, ইছাপাড়া, দুলালপুর, বারদী, সেনপাড়া, বালুয়া ইত্যাদি। পাতি, কদমী আর বোম্বাই—এই তিন প্রজাতির লিচুর ফলনই সোনারগাঁওয়ের বাগানগুলোতে বেশি হয়ে থাকে। তবে এর মধ্যে পাতি লিচুর চাষই হয় সবচেয়ে বেশি। তা ছাড়া এ প্রজাতির লিচু সবচেয়ে আগে বাজারে আসে। এরপরে যথাক্রমে পাক ধরে কদমি ও বোম্বাই লিচু। এ দুই প্রজাতির লিচু আকারে বেশ বড় হয়। পাতি লিচু আকারে ছোট হলেও স্বাদে ভালো।

যেভাবে যাবেন

ঢাকার গুলিস্তান থেকে বোরাক পরিবহন, সোনারগাঁও পরিবহন ইত্যাদি বাসে এসে নামতে হবে মুগড়াপাড়া বাস স্টেশনে। ভাড়া ৪৫-৫৫ টাকা। এ ছাড়া একই জায়গা থেকে দাউদকান্দি কিংবা মেঘনাগামী যেকোনো বাসেও মুগড়াপাড়া আসা যায়। মোগরপাড়া থেকে লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশনের রিকশা ভাড়া ২০-২৫ টাকা।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement