Beta

চোখের ভেতরে বাসা বেঁধেছিল চারটি মৌমাছি!

১১ এপ্রিল ২০১৯, ১৪:১৫

অনলাইন ডেস্ক

তাইওয়ানে এক নারীর চোখে বাসা বেঁধেছিল চারটি মৌমাছি। আকারে অনেক ছোট হওয়ায় শুরুতেই মৌমাছির বিষয়টি ধরতে পারেননি ওই নারী। চোখে ভয়াবহ যন্ত্রণা নিয়ে চিকিৎসকের কাছে যেতেই ধরা পড়ে আসল ঘটনা। চোখের ভেতরে আবিষ্কার করা হয় অনেক ছোট আকারের চারটি মৌমাছি। আর বিষয়টি ধরতে পেরেই রীতিমতো চমকে যান চিকিৎসক।

আজ বৃহস্পতিবার ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে উঠে আসে এই তথ্য।

২৮ বছর বয়সী ওই নারীর নাম হি। তিনি জানান, আত্মীয়দের কবরের পাশে আগাছা পরিষ্কার করার সময় হঠাৎ করেই চোখে এক ধরনের বাতাস অনুভব করেন তিনি। তিনি ভেবেছিলেন, তাঁর চোখের ভেতরে ময়লা ঢুকেছে।

কিন্তু কিছু সময় পরেই চোখে অসহ্য ব্যথা শুরু হলে উপায় না পেয়ে হাসপাতালে যান তিনি।

হাসপাতালের চিকিৎসক হং বিবিসিকে বলেন, ‘ওই নারী ভালোভাবে চোখ বন্ধ করতে পারছিলেন না। পরে মাইক্রোস্কোপ দিয়ে ওই নারীর চোখের ভেতরে কালো রঙের কিছু দেখতে পাই, যেগুলো পোকামাকড়ের পায়ের মতো মনে হচ্ছিল। পরে আমি পা ধরে সেগুলোকে বের করে আনি।’ মৌমাছিগুলো এখনো জীবিত অবস্থাতেই আছে বলে জানান এই চিকিৎসক।

হাত দিয়ে চোখে ঘষাঘষি না করায় মিসেস হি অনেক ভাগ্যবান বলে জানান ডা. হং। মিসেস হি খুব দ্রুত সুস্থ হয়ে যাবেন বলেও জানান তিনি।

মৌমাছিগুলো বাতাসের কারণে চোখের ভেতরে ঢুকে আটকে গিয়েছিল বলে ধারণা করছেন ডা. হং। তিনি বলেন, ‘এই মৌমাছিগুলো মূলত মানুষদের আক্রমণ করে না। তবে তারা চোখের পানি পান করতে পছন্দ করে।’

কানসাস এন্টোলোলজিকাল সোসাইটির গবেষণা অনুযায়ী, চোখে বাসা বাঁধা মৌমাছিগুলো হ্যালিডিক্টি নামেও পরিচিত। তারা ঘামের প্রতি আকৃষ্ট এবং উচ্চ প্রোটিনের জন্য তারা চোখের পানিও পান করে থাকে।

Advertisement