Beta

আবরার ফাহাদ হত্যা : আরো তিন শিক্ষার্থী রিমান্ডে

০৯ অক্টোবর ২০১৯, ১৫:৪৮ | আপডেট: ০৯ অক্টোবর ২০১৯, ১৮:৫৭

আদালত প্রতিবেদক
বুয়েটছাত্র আবরার ফাহাদ রাব্বী হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার হওয়া আসামি শামসুল আরেফিন রাফাত, মনিরুজ্জামান মনির ও মো. আকাশ হোসেনকে আজ বুধবার ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করে ডিবি পুলিশ। ছবি : ফোকাস বাংলা

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র আবরার ফাহাদ রাব্বী হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার হওয়া আরো তিন শিক্ষার্থীকে পাঁচ দিন করে রিমান্ড দিয়েছেন আদালত। রিমান্ডে পাঠানো আসামিরা হলেন শামসুল আরেফিন রাফাত (২১), মনিরুজ্জামান মনির (২১) ও মো. আকাশ হোসেন (২১)।

আজ বুধবার ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট তোফাজ্জাল হোসেন এ আদেশ দেন।

আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা (জিআরও) মাজহারুল ইসলাম এনটিভি অনলাইনকে বলেন, আজ মামলার তদন্ত কর্তকর্তা ডিবি পুলিশের পরিদর্শক ওয়াহিদুজ্জামান তিন আসামিকে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করে ১০ দিন করে রিমান্ড নেওয়ার আবেদন করেন। সে আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিচারক প্রত্যেক আসামিকে পাঁচ দিন করে রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন মঞ্জুর করেন।

জিআরও জানান, এর আগে গতকাল আবরার ফাহাদ রাব্বী হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার হওয়া ১০ আসামিকে পাঁচ দিন করে রিমান্ডে পাঠানোর আদেশ দেন। রিমান্ড মঞ্জুর করা আসামিরা হলেন বুয়েট ছাত্রলীগের বহিষ্কৃত সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান রাসেল (সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং, দ্বিতীয় বর্ষ), সহসভাপতি মুহতাসিম ফুয়াদ (সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং, দ্বিতীয় বর্ষ), সাংগঠনিক সম্পাদক মেহেদী হাসান রবিন (মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, চতুর্থ বর্ষ), তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক অনিক সরকার (মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, চতুর্থ বর্ষ), ক্রীড়া সম্পাদক মেফতাহুল ইসলাম জিয়ন (নেভাল আর্কিটেকচার অ্যান্ড মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং, চতুর্থ বর্ষ), উপসমাজসেবা সম্পাদক ইফতি মোশাররফ সকাল (বায়ো মেডিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং, তৃতীয় বর্ষ), সদস্য মুনতাসির আল জেমি (মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ, দ্বিতীয় বর্ষ), মো. মুজাহিদুর রহমান মুজাহিদ (ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং, তৃতীয় বর্ষ), মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের তৃতীয় বর্ষের খন্দকার তাবাখখারুল ইসলাম তানভির ও একই বিভাগের চতুর্থ বর্ষের ইশতিয়াক আহম্মেদ মুন্না। এ আসামিদের গত সোমবার গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

নথি থেকে জানা যায়, গত রোববার রাতে বুয়েটের শেরেবাংলা হলে মেধাবী ছাত্র আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যা করে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এ ঘটনায় সোমবার রাতে ১৯ জনকে আসামি করে চকবাজার থানায় হত্যা মামলা করেন আবরারের বাবা মো. বরকত উল্লাহ। সেই রাতেই বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান রাসেলসহ ১১ জনকে সংগঠন থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ।

Advertisement