Beta

পুনর্মিলনীতে কী করবেন, কী করবেন না

১৭ জানুয়ারি ২০১৭, ১৫:৫৭

ফিচার ডেস্ক

পুনর্মিলনীর দিনটা সবার কাছেই বিশেষ হয়ে থাকে। অনেক দিন পর পুরোনো সব বন্ধুর সঙ্গে দেখা হয়। এই দিনটা যেন ভালোভাবে কাটে, সে জন্য কিছু বিষয় মেনে চলা ভালো। এ ক্ষেত্রে রিডার্স ডাইজেস্ট আপনাকে সাহায্য করবে। পুনর্মিলনীতে কী করবেন, কী করবেন না—এ বিষয়ে চমৎকার কিছু পরামর্শ রয়েছে এতে।

১. সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পুনর্মিলনীর কয়েক দিন আগে একটি ইভেন্ট তৈরি করা হয়। যদি পুরোনো সব বন্ধুকে ওই দিন খুঁজে পেতে চান, তাহলে এখান থেকেই তাঁদের সঙ্গে যোগাযোগ তৈরি করুন। এতে পুরো দিন সব বন্ধুর সঙ্গে আনন্দে সময় কাটাতে পারেন।

২. পরিপাটিভাবে এই অনুষ্ঠানে হাজির হোন। বোঝেনই তো, অনেক দিন পর সবার সঙ্গে আপনার দেখা হতে যাচ্ছে। অনেকেই হয়তো বদলে গেছে। তাঁদের সঙ্গে নিজেকে খাপ খাওয়াতে একটু গুছিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করুন। ওই দিন নিজেকে তো একটু সেরা দেখানোর চেষ্টা না করলে কী হবে!

৩. হয়তো পুরোনো কোনো প্রেমিক/প্রেমিকার সঙ্গে ওই দিন দেখা হওয়ার সম্ভাবনা থাকবে। ভুলেও এমন কোনো আচরণ করবেন না, যাতে সে অস্বস্তির মধ্যে পড়ে। এত দিনে তাঁর জীবনে হয়তো নতুন সঙ্গী চলে এসেছে। আর মানুষ সঙ্গীকে সঙ্গে নিয়েই সচরাচর পুনর্মিলনে যাওয়ার চেষ্টা করে। কাজেই এ অবস্থায় একদম ভদ্রোচিত এবং পরিমিত আচরণ করুন।

৪. স্বাভাবিক প্রশ্ন করার চেষ্টা করুন। এমন কোনো প্রশ্ন করবেন না, যাতে অন্যরা বিব্রত হয়ে পড়ে। পড়াশোনা চলাকালে হয়তো বন্ধুদের সঙ্গে যা ইচ্ছা তা-ই বলা যায়। তাঁদের সঙ্গে যখন একটু দূরত্ব তৈরি হয়, তখন তো আর সবকিছুই আগের মতো নাও জমতে পারে, তাই না!

৫. এত দিন পর সবার সঙ্গে দেখা হচ্ছে, কোনো ধরনের ঝগড়া বা কলহের মধ্যে জড়াবেন না। এমনকি কারো সঙ্গে যদি আগে ঝামেলা হয়েও থাকে, তার সঙ্গেও হেসে কথা বলার চেষ্টা করুন।

৬. পুনর্মিলনীতে গিয়ে যেকোনো ধরনের নেশাজাতীয় দ্রব্য থেকে দূরে থাকুন। ওই খানে সবাই পরিবারের সদস্যদের নিয়ে যায়। তাই নেশা করে এমন কোনো আচরণ করবেন না, যাতে সবাই বিব্রতকর অবস্থার সম্মুখীন হয়।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement