Beta

চমকে ভরপুর বিপিএলের সেরা একাদশ

১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৫:১০

স্পোর্টস ডেস্ক

সদ্য শেষ হওয়া বিপিএলের সেরা একাদশ তৈরি করেছে ক্রিকেটবিষয়ক সংবাদমাধ্যম ইএসপিএন-ক্রিকইনফো। সবচেয়ে বড় চমক তামিম ইকবালকে অধিনায়ক করা। মাশরাফি, সাকিব আর মুশফিকের মতো বিপিএলের তিন দলের ক্যাপ্টেন একাদশে থাকার পরও কোনো দলের অধিনায়কত্ব না করা তামিমকে অধিনায়ক করা বড় চমকই বলা যায়। আরেক চমক হিসেবে একাদশে জায়গা করে নিয়েছেন চিটাগং ভাইকিংসের ব্যাটসম্যান ইয়াসির আলি।

দলের পাঁচজন বিশেষজ্ঞ ব্যাটসম্যানের তিনজনই বাংলাদেশি। ১৪ ম্যাচে টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৪৬৭ রান করা তামিম ইকবাল আছেন ওপেনিংয়ে। ১৩ ম্যাচে তৃতীয় সর্বোচ্চ ৪২৬ রান করে মুশফিক আছেন মিডলঅর্ডারে। তবে চমক হিসেবে একাদশে নির্বাচিত হয়েছেন আলাদা করে নজর কেড়ে নেওয়া ইয়াসির আলি। দারুণ মারকুটে ব্যাটিংয়ে টুর্নামেন্টে ১১ ম্যাচ ৩০৭ রান করেছেন ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান। দলের বাকি দুই ব্যাটসম্যান এবি ডি ভিলিয়ার্স ও রাইলি রুশো। রংপুরে খেলা দুই দক্ষিণ আফ্রিকান ব্যাটসম্যানের মধ্যে রুশো ১৪ ম্যাচে টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ ৫৫৮ রান করেছেন। মাত্র ছয় ম্যাচ খেললেও একটি সেঞ্চুরিসহ ২৪৭ রান করে ডি ভিলিয়ার্স ঠিকই জায়গা করে নিয়েছেন। 

একাদশে অলরাউন্ডার আছেন তিনজন। ব্যাট হাতে ৩০১ রানের পাশাপাশি টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ ২৩ উইকেট নিয়ে সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার জেতা সাকিব আল হাসান আছেন অনুমিতভাবেই। তাঁর সঙ্গে আছেন দুই ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান সুনীল নারিন ও আন্দ্রে রাসেল। ১৫ ম্যাচে ২৭৯ রান করার পাশাপাশি ১৮ উইকেট নিয়েছেন নারিন। সমানসংখ্যক ম্যাচে ১৪ উইকেট নেওয়ার পাশাপাশি ২৯৯ রান করেছেন রাসেল।

একাদশের তিন পেসারের তিনজনই বাংলাদেশের। মাশরাফি বিন মুর্তজার নেতৃত্বে পেস আক্রমণে আছেন তাসকিন আহমেদ ও রুবেল হোসেন। পুরো টুর্নামেন্টে দুর্দান্ত বোলিংয়ের পাশাপাশি পাল্লা দিয়ে উইকেট নিয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের এই তিন পেসার। তিনজনই নিয়েছেন সমান ২২টি করে উইকেট। তবে রুবেল ১৫ ম্যাচ খেললেও মাশরাফি ১৪টি আর তাসকিন খেলেছেন সবচেয়ে কম ১২টি ম্যাচ।

Advertisement