Beta

মাহির ছবির বিরুদ্ধে অভিযোগ জায়েদ খানের

১০ আগস্ট ২০১৮, ১৬:৫৪

‘তুই শুধু আমার’ ছবিতে যৌথ প্রযোজনার নীতিমালা মানা হয়নি বলে দাবি করেছেন বাংলাদেশে যৌথ প্রযোজনার চলচ্চিত্রের প্রিভিউ কমিটির সদস্য জায়েদ খান। তাই কমিটির কাছ থেকে অনাপত্তিপত্র পায়নি চলচ্চিত্রটি। ছবিটিকে অনাপত্তিপত্র দেওয়ার জন্য তথ্য মন্ত্রণালয়ের কাছে আবেদন করেছে বাংলাদেশ অংশের প্রযোজক ও পরিচালক অনন্য মামুন।

যৌথ প্রযোজনা প্রিভিউ কমিটির সদস্য জায়েদ খান বলেন, ‘আমরা প্রথমে একবার ছবিটি দেখে বাদ দিয়েছি। অনন্য মামুন আবারও আবেদন করার পর আমরা দ্বিতীয়বার ছবিটি দেখি। সেখানে যৌথ প্রযোজনা প্রিভিউ কমিটির সাতজন সদস্য উপস্থিত ছিলেন। সবাই বলেছেন, ছবিটি কলকাতার একটি লোকাল প্রোডাকশন। যৌথ প্রযোজনার নিয়ম অনুযায়ী শিল্পী, লোকেশন, টেকনিশিয়ান, এমনকি কৃষ্টি-কালচারও অর্ধেক হতে হবে। তার কিছুই ছিল না এই ছবিতে। দেখে মনে হবে এটি কলকাতার ছবি।’

কমিটির অনড় অবস্থান নিয়ে ছবিটির পরিচালক অনন্য মামুন বলেন, ‘যৌথ প্রযোজনার নিয়ম হলো কোনো ছবি শুরু করতে চাইলে তার চিত্রনাট্য দেখিয়ে আগে অনুমতি নিতে হয়। আমি এই ছবিটি নির্মাণ করার আগে যৌথ প্রযোজনার প্রিভিউ কমিটি থেকে চিত্রনাট্য অনুমোদন নিয়ে ছবিটি শুরু করি। পুরো ছবির গল্পটাই ছিল লন্ডনের একটি গল্প। মাত্র পাঁচ দিনের মতো কলকাতায় শুটিং হয়েছে। এখন লন্ডনের শুটিং তো আমি ঢাকায় করতে পারব না।’

দেশের বাইরে শুটিং নিয়ে মামুন বলেন, ‘আসলে আমি ২০১৭ সালে ছবির শুটিংয়ের জন্য প্রিভিউ কমিটিতে আবেদন করেছিলাম। আবেদন করার সময় শিল্পীদের শিডিউলসহ আবেদন করেছি। কিন্তু শুটিং করার অনুমতি পেয়েছি তারও ছয় মাস পরে। যেহেতু আমার শিল্পী দুই দেশের, তাই বারবার তাঁদের শিডিউল মেলানো সম্ভব নয়। তাই বাধ্য হয়ে আমি কলকাতায় পাঁচ দিন শুটিং করেছি। চেয়েছিলাম তিন দিন ঢাকায় শুটিং করব আর কলকাতায় দুদিন। কিন্তু সেটি হয়নি।’

শিল্পীদের নিয়ে মামুন আরো বলেন, ‘আমি অনেক শিল্পীই বাংলাদেশের ব্যবহার করেছি। শুধু আমান রেজার ভিসা জটিলতায় তিনি কাজ করতে পারেননি। তারপরও আমরা বাংলাদেশের অন্য একাধিক শিল্পীকে নিয়ে কাজ করেছি।’

মামুন এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘আমি এরই মধ্যে ছবিতে অনেক টাকা লগ্নি করেছি। ঈদে ছবিটি কলকাতায় মুক্তি পাচ্ছে। সেই হিসেবে কলকাতার প্রযোজক তাঁর টাকা উঠিয়ে নেবেন। কিন্তু ছবিটি যদি আমি বাংলাদেশে মুক্তি দিতে না পারি, তা হলে আমি অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবো। তাই আমি তথ্য মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেছি, বিশেষভাবে আমার এই ছবিটি বিবেচনা করার জন্য।’

বাংলাদেশ অংশের প্রযোজনা করেছে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান অ্যাকশন কাট এন্টারটেইনমেন্ট। কলকাতার অংশে এস কে মুভিজ। অভিনয় করেছেন বাংলাদেশের মাহিয়া মাহি, সৈয়দ হাসান ইমাম, শাহেদ আলী ও রেবেকা। ভারতের সোহম ও ওম কাজ করেছেন এই ছবিতে।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement