Beta

শুরু হচ্ছে সপ্তদশ ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব

০৯ জানুয়ারি ২০১৯, ১৭:১৭

ফিচার ডেস্ক
সংবাদ সম্মেলনে বক্তৃতা দিচ্ছেন নায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন। ছবি : সংগৃহীত

সপ্তদশ ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব শুরু হচ্ছে আগামীকাল ১০ জানুয়ারি থেকে। রেইনবো ফিল্ম সোসাইটির আয়োজনে এ উৎসব চলবে ১৮ জানুয়ারি পর্যন্ত।

এ উপলক্ষে আজ দুপুরে সংবাদ সম্মেলন হয়। সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন উৎসব পরিচালক আহমেদ মুজতবা জামাল, উৎসব কমিটির কার্যনির্বাহী সদস্য ম. হামিদ, প্রোগ্রামার জোহরে জামালি, ইয়াসিম গুজেলপিনার, চিত্রনায়ক ও উৎসবের এশিয়া চলচ্চিত্র বিভাগের একজন বিচারক ইলিয়াস কাঞ্চনসহ অনেকে।

অনুষ্ঠানে আহমেদ মুজতবা জামাল বলেন, ‘এই আন্তর্জাতিক উৎসবে সারাবিশ্বের প্রখ্যাত চলচ্চিত্র নির্মাতাদের নতুন নতুন চলচ্চিত্র সিনেমাপ্রেমীদের উপহার দেওয়াই মূল লক্ষ্য। আগামীকাল উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। তথ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব আবদুল মালেক বিশেষ অতিথি এবং অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করবেন উৎসবের পৃষ্ঠপোষক ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।’

আহমেদ মুজতবা জামাল আরো বলেন, ‘চলচ্চিত্রপ্রেমীদের কাছে এ উৎসব অনেক আনন্দের। আশা করছি, এবারও আমরা সফলভাবে এ উৎসব পরিচালনা করতে পারব।’

অন্যদিকে ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, ‘আমি দেশের বাইরে গেলে কখনোই ছবি না দেখে আসি না। সেখানকার হলগুলোর পরিবেশ খুবই ভালো। আমি সরকারের কাছে আশা করব, আমাদের দেশের হলগুলো যেন উন্নত করা হয়। সরকারি অনুদানেও অনেক ভালো গল্পের ছবি হওয়া দরকার। এই আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব আমাদের জন্য ইতিবাচক।’

উৎসবে বাংলাদেশসহ মোট ৭২টি দেশের ২১৮টি চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে। উল্লেখযোগ্য অংশগ্রহণকারী দেশগুলো হলো—আফগানিস্তান, আলবেনিয়া, আর্মেনিয়া, লেবানন, ইরান, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, পাকিস্তান, সুইজারল্যান্ড, সিরিয়া, থাইল্যান্ড, তাইওয়ান, ফিলিপাইন, জার্মানি, পর্তুগাল, নেপাল, নরওয়ে, সিরিয়া, আর্জেন্টিনা, অস্ট্রেলিয়া, পর্তুগাল, চেক রিপাবলিক, মাদাগাস্কার, থাইল্যান্ড, মঙ্গোলিয়া, সুইডেন, তুরস্ক, সার্বিয়া, তুর্কি, স্পেন, জর্ডান, ফিলিস্তিনসহ আরো অনেক দেশ রয়েছে।

উৎসবে চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে এশিয়ান কম্পিটিশন বিভাগ, রেস্ট্রোস্পেক্টিভ, বাংলাদেশ প্যানারোমা, সিনেমা অব দ্য ওয়ার্ল্ড, চিলড্রেনস ফিল্ম, স্পিরিচুয়াল ফিল্মস, উইমেন ফিল্ম মেকার সেশনসহ শর্ট অ্যান্ড ইন্ডিপেনডেন্ট—এই আটটি ক্যাটাগরিতে।

চলচ্চিত্র প্রদর্শন এবং সেমিনারের ভেন্যু হিসেবে নির্বাচন করা হয়েছে কেন্দ্রীয় গণগ্রন্থাগারের শওকত ওসমান স্মৃতি মিলনায়তন, জাতীয় জাদুঘরের কবি সুফিয়া কামাল ও প্রধান মিলনায়তন, বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি। এ ছাড়া আঁলিয়ঁস ফ্রঁসেজ মিলনায়তন ও যমুনা ব্লকবাস্টারেও সিনেমা দেখানো হবে।

Advertisement