Beta

ছয় দিনে আয় ১২০ কোটি

২৭ জুন ২০১৯, ১১:৪৬

অনলাইন ডেস্ক
‘কবির সিং’-এর দৃশ্যে শহিদ কাপুর ও কিয়ারা আদভানি। ছবি : সংগৃহীত

নানা সমালোচনা সত্ত্বেও বলিউড তারকা শহিদ কাপুরের সাম্প্রতিক সিনেমা ‘কবির সিং’ ভারতের বক্স অফিসে শাসন জারি রেখেছে। মুক্তির ষষ্ঠ দিনেও টিকেট বিক্রির ধুম। আয় প্রায় ১৬ কোটি রুপি। সন্দীপ রেড্ডি বাঙ্গা পরিচালিত এ ছবির নায়িকা ‘লাস্ট স্টোরিস’ খ্যাত কিয়ারা আদভানি।

বক্স অফিস ইন্ডিয়ার বরাত দিয়ে হিন্দুস্তান টাইমস প্রতিবেদনে জানিয়েছে, গতকাল বুধবার ‘কবির সিং’ সংগ্রহে প্রায় ১৬ কোটি রুপি যোগ করেছে। সেই হিসাবে মুক্তির ছয় দিনে মোট সংগ্রহ দাঁড়াল প্রায় ১২০ কোটি রুপি। ‘নারীবিদ্বেষী’, ‘পুরুষতান্ত্রিক’ সিনেমা আখ্যা দিয়ে অনেকেই কঠোর সমালোচনা করলেও বক্স অফিসে এর প্রভাব পড়ছে না।

চলচ্চিত্র সমালোচক ও বাণিজ্য বিশ্লেষক তারান আদর্শ জানিয়েছেন চলতি বছরে কোন সিনেমা কত দিনে শতকোটির ক্লাবে পৌঁছেছে। ভারতের বক্স অফিসে ১০০ কোটি রুপি আয় করতে অক্ষয় কুমারের ‘কেসারি’র লেগেছে সাত দিন। রণবীর সিংয়ের ‘গাল্লি বয়’-এর লেগেছে আট দিন ও কমেডি ড্রামা ‘টোটাল ধামাল’-এর লেগেছে নয় দিন। অন্যদিকে, মাত্র চার দিনেই ১০০ কোটি রুপি আয় করেছে সালমান খানের ‘ভারত’, যদিও ‘কবির সিং’-এর চেয়ে এক হাজারের বেশি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে। শতকোটির ক্লাবে পৌঁছাতে শহিদ কাপুরের ‘কবির সিং’-এর লেগেছে মাত্র পাঁচ দিন।

শহিদ কাপুরের ক্যারিয়ারে ‘কবির সিং’ই সলো হিট।

গত ২১ জুন ভারতের তিন হাজার ১২৩টি প্রেক্ষাগৃহে একযোগে মুক্তি পায় ‘কবির সিং’। সন্দীপ রেড্ড বাঙ্গা পরিচালিত তেলেগু হিট ‘অর্জুন রেড্ডি’র হিন্দি ভার্সন এ ছবি। প্রথমবারের মতো পরিচালক সন্দীপের সঙ্গে কাজ করলেন শহিদ কাপুর। ভক্তদের তুমুল সাড়া পাওয়ায় তাঁদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন শহিদ।

সিনেমার গল্পে রয়েছে, সাবেক প্রেমিকা প্রীতির (কিয়ারা) অন্যত্র বিয়ের পর ছন্নছাড়া হয়ে যায় কবির সিং (শহিদ)। এরপর আত্মবিধ্বংসী পথ বেছে নেয় কবির। সারাক্ষণ মদ আর ধূমপানে আসক্ত হয়ে পড়ে। হয়ে পড়ে আত্মনিয়ন্ত্রণহীন। ট্রেইলারে রাগান্বিত শহিদকে দেখা গেছে। মারপিটের দৃশ্যও রয়েছে। অন্যদিকে, কিয়ারা স্নিগ্ধ। শহিদ ও কিয়ারার চুমুর দৃশ্যও ঝড় তুলেছে অন্তর্জালে।

‘কবির সিং’ সিনেমায় প্রথমবার শহিদ কাপুরের সঙ্গে অনস্ক্রিন রোমান্স করলেন কিয়ারা আদভানি। এই ছবিতে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে রয়েছেন সুরেশ ওবেরয় ও নিকিতা দত্ত। প্রযোজনা করেছেন মুরাদ খেতানি, অশ্বিন বর্দে ও টি-সিরিজ।

Advertisement