Beta

আমার এলাকার উন্নয়ন দরকার : ফারুক

১৪ জানুয়ারি ২০১৯, ১৫:৪৪

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঢাকা-১৭ আসন থেকে নির্বাচিত হয়ে সংসদ সদস্য হয়েছেন চিত্রনায়ক আকবর হোসেন পাঠান (নায়ক ফারুক)। রাজধানীর গুলশান, বনানী, ক্যান্টনমেন্ট ও ভাসানটেকের কিছু অংশ নিয়ে ঢাকা-১৭ আসন গঠিত। এখন তিনি এই এলাকার সংসদ সদস্য। এক সময়ের জনপ্রিয় নায়ক এখন হাল ধরেছেন রাজনীতির। তাই তিনি এলাকার উন্নয়ন ও চলচ্চিত্র দুটি নিয়েই কাজ করতে চান। রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড ও চলচ্চিত্রে ফেরা নিয়ে সম্প্রতি তিনি কথা বলেছেন এনটিভি অনলাইনের সঙ্গে।

প্রশ্ন : নির্বাচন গেল। সেখানে জয় পেয়েছেন। এখন কেমন আছেন?

ফারুক : গত মাস দুয়েক অনেক বেশি ধকল গেছে শরীরের উপর দিয়ে। তবে সবার ভালোবাসা আমাকে সুস্থ রেখেছে। সবার দোয়ায় আলহামদুলিল্লাহ্ ভালো আছি।

প্রশ্ন : দীর্ঘদিন ধরেই আপনি বড় পর্দায় অনুপস্থিত, এখন আপনি সংসদ সদস্য। দর্শক কি আপনাকে আর বড় পর্দায় দেখতে পাবে?

ফারুক : আমার পরিচয় চলচ্চিত্র শিল্পী ফারুক হিসেবে। সারা দেশের মানুষ আমাকে নায়ক ফারুক হিসেবে চেনেন। আমিও নিজের মধ্যে অভিনয় সত্তাকে ধারণ করি। সবসময়ই চলচ্চিত্রে অভিনয় করতে চাই। তবে ভালো গল্প, চরিত্র না পেলে আমি তো আর অভিনয় করতে পারি না। দর্শক আমাকে একটা স্থান দিয়েছে। আমি সেটা ধরে রেখেই অভিনয় করতে চাই।

প্রশ্ন : আপনি নিজে চলচ্চিত্র প্রযোজনা করার ঘোষণা দিয়েছিলেন, এখনো নির্মাণ শুরু করছেন না কেন?

ফারুক : আমি তিনটি চলচ্চিত্র প্রযোজনার করার ঘোষণা দিয়েছিলাম। অবশ্যই তা করব। এর মধ্যে কিছু গল্প দেখেছি, ভালো লেগেছে। আরো দেখছি। তবে এখনই তা নির্মাণ করব না। ছবি নির্মাণ করতে গেলে প্রথমে দেখতে হয় ব্যবসা কতটা হবে। এখন সেই অবস্থা অনেকটাই নেই। আগে চেষ্টা করব চলচ্চিত্রের সমস্যাগুলোর সমাধান করতে।

প্রশ্ন : কেন চলচ্চিত্রে ব্যবসা কম হচ্ছে?

ফারুক : চলচ্চিত্রে ব্যবসা করতে প্রথমত প্রয়োজন ভালো গল্প। সিনেমা হলে ছবি দেখার পরিবেশ থাকতে হবে। ভালো প্রজেক্টর, হলের পর্দা, সুন্দর আসন। আমাদের সিনেমা হলগুলোর অবস্থা অনেকটাই নাজুক। সব মিলিয়ে আসলে অবস্থাটা এমন দাঁড়িয়েছে।

প্রশ্ন : এমন অবস্থা থেকে উঠে আসার পথ কী?

ফারুক : সরকারের সহযোগিতা লাগবে। প্রজেক্টর, আসন ও সিনেমা হলের পরিবেশ ঠিক করতে হবে। সেক্ষেত্রে ব্যাংকগুলো যদি সহজ শর্তে সিনেমা হলকে ঋণ দেয়, তবে সিনেমা হলের পরিবেশ ঠিক করা সম্ভব। তার সাথে প্রয়োজন ভালো মৌলিক চলচ্চিত্র নির্মাণ। আমি, আমজাদ ভাই এসব নিয়ে কথা বলতাম। বোঝার চেষ্টা করতাম এখন কেমন ছবি নির্মাণ করা উচিত। আসলে ভালো চলচ্চিত্র নির্মাণ করতে গেলে গবেষণাও লাগে।

প্রশ্ন : চলচ্চিত্রের নানা সমস্যা নিয়ে আপনি গত তিন বছর আন্দোলন করেছেন। সরকারের কাছে বিভিন্ন দাবি করেছেন। এখন আপনি নিজেই সরকার দলের একজন সংসদ সদস্য। সংসদে গিয়ে কি আপনি চলচ্চিত্রের সমস্যা তুলে ধরবেন?

ফারুক : আসলে আমরা যারা টিভিতে সংসদ অধিবেশন দেখি সেটা সিনেমা নাটকের মতো মনে হয়। কিন্তু যারা সেখানে কাজ করেন তাদের জন্য বিষয়গুলো এতটা সহজ নয়। আমি চলচ্চিত্রের কথা অবশ্যই বলব, তবে আগে আমার এলাকার উন্নয়ন দরকার। দল আমাকে রাজনৈতিকভাবে মনোনয়ন দিয়েছে, চলচ্চিত্র শিল্পী হিসেবে নয়। তবে চলচ্চিত্র আমাকে সমৃদ্ধ করেছে। এলাকার মানুষের উন্নয়ন করার পর যতটা সময় পাব, পুরোটাই আমি চলচ্চিত্রের জন্য ব্যয় করব।

Advertisement