Beta

শ্বাসকষ্ট কেন হয়?

১৩ মার্চ ২০১৯, ১৪:২৭

ফিচার ডেস্ক
শ্বাসকষ্টের বিভিন্ন কারণের বিষয়ে আলোচনা করেছেন ডা. ডা. ইকবাল হাসান মাহমুদ ও ডা.সানজিদা হোসেন। ছবি : এনটিভি

শ্বাসকষ্ট হলেই সবাই সাধারণত হাঁপানি বা অ্যাজমা মনে করে। তবে হাঁপানি ছাড়াও বিভিন্ন কারণে শ্বাসকষ্ট হয়।

শ্বাসকষ্ট হওয়ার বিভিন্ন কারণের বিষয়ে এনটিভির নিয়মিত আয়োজন স্বাস্থ্য প্রতিদিন অনুষ্ঠানের ৩৩৭৫তম পর্বে কথা বলেছেন ডা. ইকবাল হাসান মাহমুদ। বর্তমানে তিনি ইউনাইটেড হাসপাতালের বক্ষ্যব্যাধি বিভাগের পরামর্শক হিসেবে কর্মরত।

প্রশ্ন : কী কী কারণে শ্বাসকষ্ট হয়? আর কী কারণে শ্বাসকষ্ট হয়েছে, সেটি কি বোঝার কোনো উপায় রয়েছে?

উত্তর : অধিকাংশ রোগী আমাদের কাছে এসে বলে, ‘স্যার আমি হাঁপানিতে ভুগছি’। তবে হাঁপানি অনেক শ্বাসকষ্টের কারণের মধ্যে একটি নাম। হাঁপানি রয়েছে। আবার হার্ট ফেইলিউর যদি হয়ে যায় কারোর, তখন শ্বাসকষ্ট হয়। একে আমরা কার্ডিয়াক অ্যাজমা বলি। কিডনি ফেইলিউর নিয়ে অনেক সময় আসে। দেখা যায়, শ্বাসকষ্ট হচ্ছে। কিন্তু রোগী বলে, হাঁপানি। আসলে তার কিডনি ফেইল করে গেছে। আরেকটি বড় সমস্যা রয়েছে। সেটি হলো সিওপিডি। ক্রনিক অবসট্রাকটিভ পালমোনারি ডিজিজ। এটা সাধারণত চল্লিশোর্ধ্ব বয়স্ক লোকদের দেখা যায়। যে যত বেশি দিন ধরে ধূমপান করবে, যে যত বেশি সংখ্যায় ধূমপান করবে, তার সিওপিডিতে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা অনেক। ফুসফুসের বড় একটি অংশ টিবি হয়ে বা ক্যানসার হয়ে বা বড় কোনো সংক্রমণ হয়ে হয়তো সমস্যা হয়েছে, এ থেকেও শ্বাসকষ্ট হতে পারে। আসলে শ্বাসকষ্ট কোনো রোগ নয়, এটি একটি অনুভূতির নাম।

এখন হাঁপানিতে কী হয়? হাপাঁনিতে ফুসফুসের যে শ্বাসনালিগুলো রয়েছে, সেগুলো কোনো অ্যালার্জেনের কারণে যখন অতি সংবেদনশীলতা সৃষ্টি করে, তখন ফুসফুসের যে শ্বাসনালিগুলো সংকুচিত হয়ে যায়, সেখানে এক ধরনের তরল অনেক বেশি মাত্রায় তৈরি হয়, সংকুচিত হয় এবং ছোট ছোট অসংখ্য ঘায়ের সৃষ্টি হয়। আমরা নতুন একটি পরীক্ষা এখন করছি। এর নাম ফেনো। যাদের এই শ্বাস ছাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ফেনোটা পজিটিভ হয়, আমরা ধরে নিই তার ফুসফুসের শ্বাসনালিতে ক্ষত রয়েছে। সেই লোকের অ্যাসমাসল, ভ্যান্টোলিন ওষুধ দিয়ে কাজ হবে না। স্টেরয়েড সমৃদ্ধ ইনহেলার নিয়মিতভাবে নিয়ে যেতে হবে। নিয়মিতভাবে যদি স্টেরয়েড সমৃদ্ধ ইনহেলার নেয়, তাহলে আস্তে আস্তে এই ক্ষতগুলো শুকাবে এবং শ্বাসনালির যে অতি সংবেদনশীলতা রয়েছে, সেগুলো আস্তে আস্তে কমে যাবে। কিন্তু সমস্যা হলো, রোগীকে আমরা ইনহেলার লিখে দেই। তবে কীভাবে নিতে হবে সেটি দেখিয়ে দেই না। 

Advertisement