Beta

মরিচ ছাড়া মুড়ি খেয়ে ডিপজল ভাইরাল

১৮ এপ্রিল ২০১৯, ২০:২৭ | আপডেট: ১৮ এপ্রিল ২০১৯, ২০:৪১

বিনোদন প্রতিবেদক

বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের খলনায়ক তিনি। মুড়ি খাচ্ছেন, সঙ্গে মরিচ খাচ্ছেন আবার খাচ্ছেন না। কথায় আছে গন্ধেই অর্ধভোজন। মরিচ খেতে সমস্যা, তাই শুধু গন্ধ নিয়েই ঝালের স্বাদ নিচ্ছিলেন এই অভিনেতা। গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় মরিচের গন্ধ নিয়ে শুধু মুড়ি খাওয়ার এই ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে।

ভিডিওতে দেখা যায় চামচ দিয়ে মুড়ি খাচ্ছেন এক হাতে। অন্য হাতে একটি মরিচ নাকের কাছে নিয়ে ঘ্রাণ নিচ্ছেন। এসময় এই দৃশ্য একজন মোবাইল ফোনে ধারণ করে। এনটিভি অনলাইনকে ডিপজল জানান দুষ্টুমি করেই ওরকম করে মুড়ি খাচ্ছিলেন তিনি।

ডিপজল বলেন, ‘বিষয়টি একেবারেই দুষ্টুমি। গতকাল বিকেলে সাভারে আমার শুটিং হাউজে বন্ধুদের নিয়ে আড্ডা দিচ্ছিলাম। সেখানে সবাই মিলে মুড়ি খাচ্ছিলাম, অনেকেই মুড়ির সাথে কাঁচামরিম খাচ্ছিল। আমি বেশি ঝাল খেতে পারি না। সেজন্য কাঁচামরিচ নিয়ে দুষ্টুমি করছিলাম। বন্ধুদের কয়েকজন বিষয়টি ভিডিও করছিল। তবে কীভাবে ভিডিওটি ভাইরাল হলো আমি বলতে পারব না।’

জনপ্রিয় অভিনেতা মনোয়ার হোসেন ডিপজল ঈদে আসছেন ‘সৌভাগ্য’ চলচ্চিত্র নিয়ে। এই ছবিতে ডিপজলের সঙ্গে দেখা যাবে নায়িকা মৌসুমীকে। ছবিটি পরিচালনা করেছেন এফ আই মানিক। 

চলচ্চিত্রে ডিপজলের আত্মপ্রকাশ ঘটেছিল নায়ক হিসেবে। প্রথম ছবি ‘টাকার পাহাড়’। মনতাজুর রহমান আকবর পরিচালিত এ ছবিতে তার নায়িকা ছিলেন মিষ্টি। এরপর তিনি আবিদ হাসান বাদল পরিচালিত ‘হাবিলদার’ ছবিতে নায়ক হিসেবে অভিনয় করেন। তারপর দীর্ঘ বিরতি। নব্বই দশকের শেষের দিকে ডিপজল কাজী হায়াৎ পরিচালিত ‘তেজী’ ছবির মাধ্যমে ভিলেন হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে রীতিমতো হইচই ফেলে দেন। তখন ডিপজল মানেই ছবি হিট। টানা কয়েক বছর ভিলেন হিসেবে দাপটের সঙ্গে অভিনয় করার পর আবার একটা বিরতি নেন তিনি। ২০০৪ সালে এফ আই মানিক পরিচালিত ‘কোটি টাকার কাবিন’ ছবিতে সম্পূর্ণ নতুনরূপে আত্মপ্রকাশ করেন ডিপজল। গল্পের কেন্দ্রীয় চরিত্রে ছবিটি সুপার ডুপার হিট হলে ডিপজল নায়ক হিসেবে একের পর এক ছবিতে অভিনয় করে সাফল্যের শীর্ষে চলে আসেন।

Advertisement